Dark Mode
Tuesday, 23 July 2024
Logo

‘বিমা খাতে দুর্নীতি-অনিয়মের জন্য সিইওরা দায়ী নয়’

‘বিমা খাতে দুর্নীতি-অনিয়মের জন্য সিইওরা দায়ী নয়’

চাকরির নিরাপত্তা পেলে বিমা খাতে সুশাসন প্রতিষ্ঠায় সিইওরা ভূমিকা রাখতে পারে বলে মনে করছেন বাংলাদেশ ইন্স্যুরেন্স ফোরামের (বিআইএফ) প্রেসিডেন্ট ও পপুলার লাইফ ইন্স্যুরেন্সের মুখ্য নির্বাহী বি এম ইউসুফ আলী। তিনি বলেন, বিমা কোম্পানির সিইওদের নেতৃত্বে কোনও টাকা চুরি হয় না। বিমা খাতে দুর্নীতি-অনিয়মের জন্য সিইওরা দায়ী নয়।

 

সোমবার (২০ নভেম্বর) বিমা খাতের নিয়ন্ত্রক সংস্থা আইডিআরএ আয়োজিত এক সেমিনারে তিনি এসব কথা বলেন।

 

করপোরেট গভর্ন্যান্স গাইডলাইন নিয়ে রাজধানীর সিরডাপ মিলনায়তনে আয়োজিত এ সেমিনারে প্রধান অতিথি ছিলেন অর্থ মন্ত্রণালয়ের আর্থিক প্রতিষ্ঠান বিভাগের সচিব মোহাম্মদ সলীম উল্লাহ। কর্তৃপক্ষের চেয়ারম্যান মোহাম্মদ জয়নুল বারী এতে সভাপতিত্ব করেন।

 

বিআইএফ’র প্রেসিডেন্ট বি এম ইউসুফ আলী বলেন, বিমা খাতে উন্নয়ন ও সুশাসন নিশ্চিত করতে বীমা উন্নয়ন ও নিয়ন্ত্রণ কর্তৃপক্ষের জারি করা ‘করপোরেট গভর্ন্যান্স গাইডলাইন’ অত্যন্ত সময়োপযোগী। এটা বাস্তবায়ন হলে বিমা খাতে সুশাসন প্রতিষ্ঠা হবে।

 

তিনি বলেন, কোম্পানির এমডি বা সিইও বোর্ডের একজন কর্মচারী। একজন এমডি বা সিইও’র পক্ষে পরিচালনা পর্ষদের বাইরে গিয়ে কিছুই করার সুযোগ নেই বাংলাদেশের আইনের প্রেক্ষাপটে।

 

বিএম ইউসুফ আলী আরও বলেন, দেশের যে কয়টি বড় কোম্পানি ধ্বংস হয়ে গেছে সেগুলোর কাহিনী যদি আমরা দেখি তাহলে দেখা যায়, কারা এখানে দায়ী। এখানে সিইও’দের ভূমিকা কী ছিল। দেখা যায়, সিংহভাগ দায়-দায়িত্ব বোর্ডের। এখানে ম্যানেজমেন্টের সাথে যারা সংশ্লিষ্ট তারা শুধু পরিচালনা পর্ষদের নির্দেশনা মেনেছে।

 

তিনি বলেন, সম্প্রতি অনিয়ম-দুর্নীতির জন্য বিমা কোম্পানির পরিচালনা পর্ষদ ভেঙে দেওয়া হয়েছে। কিন্তু শুধু বোর্ড ভেঙে দিলেই সমাধান হবে না, সমাধান হয়নি।

 

বিএম ইউসুফ আলী বলেন, বিমা কোম্পানিগুলোর অর্থ চুরির জন্য একজন সিইও’র বিরুদ্ধেও কোনও মামলা হয়নি। কারণ, তারা জানে আসলে তারা টাকা নেয়নি; টাকা যাদের নেওয়ার তারাই নিয়েছে।

 

সেমিনারে আর্থিক প্রতিষ্ঠান বিভাগের সচিব শেখ মোহাম্মদ সলীম উল্লাহ বলেন, বিমা খাত এমন একটি খাত যেখানে মানুষের আস্থা প্রয়োজন। তিনি উল্লেখ করেন, একাউন্টিংয়ের পরিভাষায় বিমা হলো- অন গোয়িং কনসার্ন; এটি চলবেই। আর যদি চলতেই হয় তাহলে তাকে চলার আদলেই থাকতে হবে। যদি কেউ এখানে আসেন তাকে থাকতে হবে। আর যদি কেউ ব্যবসা গুটাতে চায় তাহলে তাদের এখানে না আসা উচিত।

 

আর্থিক প্রতিষ্ঠান বিভাগের এই সচিব বলেন, স্মার্ট বাংলাদেশ গড়তে হলে অর্থনৈতিক কর্মকাণ্ড বাড়বে। একইসাথে বাড়বে ঝুঁকি। প্রয়োজন হবে ঝুঁকি ব্যবস্থাপনাও। আর এ জন্য প্রয়োজন বিমার।

 

অন্যান্য কোম্পানির চেয়ে বিমা কোম্পানি পৃথক ও উন্নত উল্লেখ করে তিনি বলেন, দু’একটি কোম্পানির কারণেও এই অবস্থান নষ্ট হতে পারে। বিমা খাতের অবস্থানকে ধরে রাখার জন্য আপ্রাণ চেষ্টা করতে হবে।

 

Comment / Reply From

Stay Connected

Vote / Poll

ঈদযাত্রায় এবছর যানজট অনেকটা কম হবার কারণ কী বলে মনে করেন?

View Results
আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর যথাযথ পদক্ষেপ
0%
যথাসময়ে সড়কের উন্নয়ন কাজ শেষ
100%
যানজট এখনও রয়েই গেছে
0%
21313