Dark Mode
Wednesday, 30 November 2022
Logo

বিদেশী ১২টি সিরাপ নিয়ে ঔষধ প্রশাসনের সতর্কতা

বিদেশী ১২টি সিরাপ নিয়ে ঔষধ প্রশাসনের সতর্কতা

বিদেশী ১২টি সিরাপ সেবনে সতর্কতা জারি করেছে ঔষধ প্রশাসন অধিদপ্তর। এসব সিরাপ বিদেশী দুটি ওষুধ প্রস্তুতকারক প্রতিষ্ঠান উৎপাদন ও রফতানি করে আসছে। তবে বাংলাদেশে এসব সিরাপ বাজারজাত হচ্ছে না বলে জানিয়েছে ঔষধ প্রশাসন অধিদপ্তর।

 

অধিদপ্তর সূত্রে জানা যায়, ডায়রিয়া ও কিডনি সমস্যায় ফেলতে পারে এমন শঙ্কা থেকে বিদেশী দুটি প্রতিষ্ঠানের ১২টি সিরাপ ব্যবহার থেকে বিরত থাকার অনুরোধ করা হয়। প্রথমে ভারতীয় একটি কোম্পানির চারটি ওষুধ ব্যবহার থেকে বিরত থাকতে অনুরোধ করে নিজেদের ওয়েবসাইটে প্রকাশ করে অধিদপ্তর।

 

বাংলাদেশে এসব ওষুধ ব্যবহার হয় না বলে জানিয়েছেন ঔষধ প্রশাসন অধিদপ্তরের পরিচালক মো. আসরাফ হোসেন। বণিক বার্তাকে তিনি বলেন, এসব ওষুধ বাংলাদেশে আমদানি করা হয় না। বাংলাদেশের বাজারে এসব ওষুধ নেই। এর পরও অতিরিক্ত সতর্কতা হিসেবে এসব ওষুধ সেবনে সতর্কতা দেয়া হয়েছে।

 

জানা যায়, সিরাপগুলোয় মাত্রাতিরিক্ত ইথিলিন গ্লাইকল ও ড্রাই ইথিলিন গ্লাইকল পেয়েছে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা (ডব্লিউএইচও)। এসব উপাদান সেবন করা অত্যন্ত অনিরাপদ। বিশেষ করে শিশুদের এসব ওষুধ সেবনে পেটব্যথা, ডায়রিয়া, মাথাব্যথা, মানসিক সমস্যা এমনকি মৃত্যু পর্যন্ত হতে পারে।

 

ভারতের মেডেন ফার্মাসিউটিক্যালস লিমিটেডের এসব সিরাপের মধ্যে রয়েছে প্রোমেথাজিন ওরাল সলিউশন বিপি ১০০ এমএল, কোফ্যাক্সমালিন বেবি কফ সিরাপ ১২৫ এমএল, ম্যাকফ বেবি কফ সিরাপ ১০০ এমএল ও ম্যাগ্রিপ এন গোল্ড সিরাপ ১০০ এমএল। গত মাসে গাম্বিয়ায় ভারতীয় এসব সিরাপ পানে ৬৬ শিশুর মৃত্যু ঘটনা ঘটে। ডব্লিউএইচও বিষয়টি নিয়ে অধিক তদন্ত শুরু করে।

 

ডব্লিউএইচও বুধবার দক্ষিণ-পূর্ব এশিয়ার দেশগুলোর জন্য ইন্দোনেশিয়ার আটটি সিরাপ ব্যবহারে সতর্কতা দিয়েছে। এসব সিরাপের মধ্যে রয়েছে টারমোরেক্স সিরাপ, ফ্লুরিন ডিএমপি সিরাপ, ইউনিবেবি কফ সিরাপ, ইউনিবেবি ডিমাম প্যারাসিটামল ড্রপস, ইউনিবেবি ডিমাম প্যারাসিটামল সিরাপ, প্যারাসিটামল ড্রপস, প্যারাসিটামল সিরাপ (মিন্ট) অ্যান্ড ভিপকল সিরাপ।

 

বিটি/আরকে

Comment / Reply From

Stay Connected

Vote / Poll

ঈদযাত্রায় এবছর যানজট অনেকটা কম হবার কারণ কী বলে মনে করেন?

View Results
আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর যথাযথ পদক্ষেপ
0%
যথাসময়ে সড়কের উন্নয়ন কাজ শেষ
100%
যানজট এখনও রয়েই গেছে
0%
21313